ঘোষনাঃ
সম্মানীত সদস্যবৃন্দ ! আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, সার্ভারে কারিগরি ত্রুটির কারনে সার্ভার মেরামতের কাজ চলছে৷ তাই এই সময়ে কেউ প্রশ্ন করবেন না এবং কোন প্রশ্নে উত্তর দিবেন না৷ দয়া করে অপেক্ষা করুন৷
Ask Answers এ আপনাকে স্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং সাইটের অন্যান্য সদস্যদের কাছ থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন
7 বার দেখা হয়েছে
"ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে করেছেন

1 টি উত্তর

0 জনের পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন
ইউনূস (আ:)এর বংশ সম্পর্কে শুধু এটুকুই জানা যায় যে, তাঁর পিতার নাম ছিল 'মাত্তা'।বুখারী শরীফের একটি হাদীসে আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস হতে এ কথা স্পষ্টভাবে বর্ণিত আছে। বাইবেলে ইউনূস (আ:)এর নাম 'ইউনাহ' এবং তাঁর পিতার নাম 'আমতা' বলা হয়েছে। তবে ইউনূস ইবনে মাত্তাহ এবং ইউনাহ ইবনে আমতার মাঝে ব্যক্তি হিসেবে কোন পার্থক্য নেই। এটা আরবি ও হিব্রু ভাষার উচ্চারণের পার্থক্য।

ইরাকের সুপ্রসিদ্ধ জনপদ 'নীনাওয়া'এর অধিবাসীদের হিদায়াতের জন্য তাঁর আবির্ভাব হয়েছিল। নীনাওয়া আশূরী রাজ্যের রাজধানী এবং মাওসেল এলাকার কেন্দ্রীয় শহর ছিল। কোরআনে এই শহরের জনসংখ্যা এক লক্ষাধিক বলা হয়েছে।

২৮ বছর বয়সে ইউনূস (আ:) নবুয়্যত লাভ করেন এবং নীনাওয়াবাসীদের দাওয়াত দিতে আদিষ্ট হন। দীর্ঘদিন দাওয়াত দেয়ার পরও তারা ইমান না আনায় তিনি ক্রুদ্ধ হয়ে নীনাওয়াবাসীর জন্য গজবের দোয়া করেন এবং ওই শহর ত্যাগ করেন। ফোরাত (ইউফ্রেটিস) নদীর তীরে পৌঁছার পর তিনি নৌকায় আরোহণ করেন। মাঝ নদীতে যাওয়ার পর নৌকা ঝড়ে আক্রান্ত হয়। সে যুগের কুসংস্কার অনুযায়ী নৌকার আরোহীরা মনে করল, নিশ্চয় এই নৌকায় কোন পলাতক দাস আছে। এটা শুনে ইউনূস (আ:) এর চৈতন্যদয় হলো যে, তিনি শহর ছাড়ার ব্যাপারে আল্লাহর অনুমতির অপেক্ষা করেননি। তিনি নিজের দোষ স্বীকার করলেন। নৌকার আরোহীরা তাঁর সততায় মুগ্ধ হলো এবং তাকে নৌকা থেকে ফেলে দিতে সম্মত হলো না। শেষ পর্যন্ত তারা লটারী করল এবং সেখানেও ইউনূস (আ:) এর নামই উঠল। ফলে বাধ্য হয়ে তারা ইউনুস (আ:) কে নদীতে ফেলে দিল। এসময় এক বিরাট মাছ তাকে গিলে ফেলল। কারো কারো মতে, সেটা ছিল তিমি মাছ। তিমির পেটের অন্ধকারের মাঝে তিনি আল্লাহর কাছে কাকুতি মিনতি করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। আল্লাহ তার দোয়া কবুল করলেন। ফলে আল্লাহর আদেশে মাছটি তাকেঁ নদীর তীরে এসে উগড়ে দিল। কোরআনের বর্ণনা মতে, দীর্ঘদিন মাছের পেটে থাকার কারণে তিনি অসুস্থ এবং দুর্বল হয়ে পড়েন। তাই আল্লাহ আপন অনুগ্রহে সেখানে লাউগাছ উৎপন্ন করেন। সুস্থ হওয়ার পর তাকেঁ আবার নীনাওয়াবাসীদের কাছেই পাঠানো হয় এবং নীনাওয়াবাসী ইমান আনে।

এরকম আরও কিছু প্রশ্ন

1 টি উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তুষার
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
0 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
0 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তুষার
1 টি উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তুষার
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
0 টি উত্তর
24 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা
1 টি উত্তর
23 ফেব্রুয়ারি "ইসলামের ইতিহাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানহা

15,503 টি প্রশ্ন

15,430 টি উত্তর

488 টি মন্তব্য

719 জন সদস্য

Ask Answers সাইটে আপনাকে সুস্বাগতম! এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করতে পারবেন ৷ আর অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে অবদান রাখতে পারবেন ৷
8 জন অনলাইনে আছেন
0 জন সদস্য, 8 জন অতিথি
  1. তানহা

    532 পয়েন্ট

    100 টি উত্তর

    32 টি গ্রশ্ন

  2. Sharif45

    465 পয়েন্ট

    86 টি উত্তর

    34 টি গ্রশ্ন

  3. Mohammad Sayem

    460 পয়েন্ট

    80 টি উত্তর

    60 টি গ্রশ্ন

  4. Md.Sabbir

    341 পয়েন্ট

    53 টি উত্তর

    76 টি গ্রশ্ন

  5. Md.Suny

    218 পয়েন্ট

    19 টি উত্তর

    123 টি গ্রশ্ন

এখানে প্রকাশিত প্রশ্ন ও উত্তরের দায়ভার কেবল সংশ্লিষ্ট প্রশ্নকর্তা ও উত্তর দানকারীর৷ কোনপ্রকার আইনি সমস্যা Ask Answers বহন করবে না৷
...